Skip to content
এডুলিচার বিশুদ্ধজ্ঞান প্রকল্প

আজ বৃহস্পতিবার,
১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১৪ই সফর, ১৪৪২ হিজরি, শরৎকাল,
এখন বাংলাদেশ মান সময় সকাল ৬:৩২ মিনিট

নজরুল রচনাবলীতে ৪৮ টি গ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

নজরুল রচনাবলী প্রকল্প

কাজী নজরুল ইসলাম বিংশ শতাব্দীর অন্যতম অগ্রণী বাঙালি কবি, ঔপন্যাসিক, নাট্যকার, সঙ্গীতজ্ঞ ও দার্শনিক যিনি বাংলা কাব্যে অগ্রগামী ভূমিকা রাখার পাশাপাশি প্রগতিশীল প্রণোদনার জন্য সর্বাধিক পরিচিত। তিনি বাংলা সাহিত্য, সমাজ ও সংস্কৃতি ক্ষেত্রের অন্যতম শ্রেষ্ঠ ব্যক্তিত্ব হিসেবে উল্লেখযোগ্য। বাঙালি মনীষার এক তুঙ্গীয় নিদর্শন কাজী নজরুল ইসলাম। তিনি বাংলাদেশের জাতীয় কবি। পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশ — দুই বাংলাতেই তাঁর কবিতা ও গান সমানভাবে সমাদৃত। তাঁর কবিতায় বিদ্রোহী দৃষ্টিভঙ্গির কারণে তাঁকে বিদ্রোহী কবি নামে আখ্যায়িত করা হয়েছে। তাঁর কবিতার মূল বিষয়বস্তু ছিল মানুষের ওপর মানুষের অত্যাচার এবং সামাজিক অনাচার ও শোষণের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদ।
বিংশ শতাব্দীর বাংলা মননে কাজী নজরুল ইসলামের মর্যাদা ও গুরুত্ব অপরিসীম। একাধারে কবি, সাহিত্যিক, সংগীতজ্ঞ, সাংবাদিক, সম্পাদক, রাজনীতিবিদ এবং সৈনিক হিসেবে অন্যায় ও অবিচারের বিরুদ্ধে নজরুল সর্বদাই ছিলেন সোচ্চার। তাঁর কবিতা ও গানে এই মনোভাবই প্রতিফলিত হয়েছে। অগ্নিবীণা হাতে তাঁর প্রবেশ, ধূমকেতুর মতো তাঁর প্রকাশ। যেমন লেখাতে বিদ্রোহী, তেমনই জীবনে – কাজেই “বিদ্রোহী কবি”।
এডুলিচার, বাংলা একাডেমি প্রকাশিত কাজী নজরুল ইসলামের এই যাবৎ প্রকাশিত রচনা সঙ্কলন নজরুল রচনাবলীর অনলাইন ভার্ষণ তৈরী করেছে যাতে তাঁর সকল রচনা পাঠক সাধারণের জন্য সহজলভ্য হয়। বরাবরের মতো এডুলিচারের এই প্রকল্পটিও সম্পূর্ণ উন্মুক্ত ও বাণিজ্যিক উদ্দেশ্য রহিত।

এডুলিচার নজরুল রচনাবলীর বৈশিষ্ট্য

☛ বাংলা একাডেমি, ঢাকা কর্তৃক প্রকাশিত নজরুল রচনাবলীর বানান অনুসরণ করা হয়েছে;
☛ গ্রন্থসমূহকে প্রথম প্রকাশের কাল অনুযায়ী সাজানো হয়েছে;
☛ রচনাসূমহ কবিতা, কবিতা ও গান, গান, গল্প, উপন্যাস, প্রবন্ধ, অনুবাদ, নাটক চিঠিপত্র ও অন্যান্য বিভাগে সাজানো হয়েছে;
☛ কাজী নজরুল ইসলামের সমগ্র জীবনের ঘটনাবলীর আলোকে জীবনী নির্ঘণ্ট সংযোজন করা হয়েছে;
☛ রচনাসমূহের বর্ণানুক্রমিক একটি নির্ঘণ্ট সংযোজন করা হয়েছে;
☛ সম্ভাব্য ক্ষেত্রে নজরুল সঙ্গীতের স্বরলিপি সংযোজন করা হয়েছে।

একনজরে নজরুল রচনাবলী

মোট গ্রন্থ
৪৮ টি
কাব্যগ্রন্থ
০ টি
কবিতা
৬৫৭ টি
গীতিগ্রন্থ
৭৩০ টি
গান
০ টি
প্রবন্ধগ্রন্থ
০ টি
প্রবন্ধ
০ টি
উপন্যাস
০ টি
গল্পগ্রন্থ
০ টি
গল্প
১৮ টি
বিবিধ
০ টি
নির্মাণ
পরিচালনায়

নির্বাচিত গল্প

  • ভার্দুন ট্রেঞ্চ, ফ্রান্স
    ওঃ! কী আগুন-বৃষ্টি! আর কী তার ভয়ানক শব্দ! – গুড়ুম – দ্রুম – দ্রুম! – আকাশের একটুও নীল দেখা যাচ্ছে না, যেন সমস্ত আশমান জুড়ে আগুন লেগে গেছে! গোলা আর বোমা ফেটে ফেটে আগুনের ফিনকি এত ঘন বৃষ্টি হচ্ছে যে, অত ঘন যদি জল ঝরত আসমানের নীলচক্ষু বেয়ে, তা হলে এক দিনেই সারা দুনিয়া পানিতে সয়লাব হয়ে যেত! আর এমনই অনবরত যদি এই বাজের চেয়েও কড়া ‘দ্রুম দ্রুম’ শব্দ হত, তাহলে লোকের কানগুলো একেবারে অকেজো হয়ে যেত। আজ শুধু আমাদের সিপাইদের সেই ‘হোলি’ খেলার গানটা, মনে পড়ছে, –
    ‘আজু তলওয়ার সে খেলেঙ্গে হোরি
    জমা হো গয়ে দুনিয়া কা সিপাই।
    ঢালোঁও কি ডঙ্কা বাদন লাগি, তোপঁও কে পিচকারী,
    গোলা বারুদকা রঙ্গ বনি হ্যায়, লাগি হ্যায় ভারী লড়ান্!’
    বাস্তবিক এ গোলা-বারুদের রঙে আশমান-জমিন লালে-লাল হয়ে গেছে! সব চেয়ে বেশি লাল ওই বুকে ‘বেয়নেট’-পোরা হতভাগাদের বুকের রক্ত! লালে লাল! শুধু লাল আর লাল! এক একটা সিপাই ‘শহিদ’ হয়েছে, আর যেন বিয়ের নওশার মতো লাল হয়ে শুয়ে আছে!
    ওঃ! সবচেয়ে বিশ্রী ওই ধোঁয়ার গন্ধটা। বাপ রে বাপ! ওর গন্ধে যেন বত্রিশ নাড়ি পাক দিয়ে ওঠে। – মানুষ, সৃষ্টির শ্রেষ্ঠ জীব, তাদের মারবার জন্যে এ-সব কী কুৎসিত নিষ্ঠুর উপায়। রাইফেলের গুলির প্রাণহীন সিসাগুলো যখন হাড়ে ...

নির্বাচিত কবিতা

  • দীওয়ান-ই-হাফিজ
    গজল ৮
    ছন্দসূত্র :– আগন আঁ তুর  কে শিরাজি  বদসত আ-রদ  দিলে মারা।
    যদিই কান্তা শিরাজ সজ্‌নি ফেরত দেয় মোর  চোরাই দিল্ ফের।
    যদিই কান্তা শিরাজশিরাজ : প্রদীপ, ভিন্ন অর্থে ইরানের নাগরী। সজ্‌নি ফেরত দেয় মোর চোরাই দিল্ ফের,
    সমরখন্দ আর বোখারায় দিই বদল তার লাল গালের তিল্‌টের!
    লে আও সাকি, শরাব শেষটুক! কোথাও নাই ভাই, বেহেশতেও সে,
    নহরনহর : জলধারা।, ‘রোকনা-আবাদ’রোকনা-আবাদ : কবি হাফিজের বাস-পল্লির পাশে অবস্থিত উপনদীর নাম।-তীর ...

মেধাস্বত্ব বিষয়ক ঘোষণা

নজরুল রচনাবলীর রচনাসমূহের উৎস দেশ ভারত ও বাংলাদেশ, এবং ভারতীয় কপিরাইট আইন, ১৯৫৭বাংলাদেশ কপিরাইট আইন, ২০০০ অনুসারে, লেখকের মৃত্যুর ষাট বছর পর স্বনামে ও জীবদ্দশায় প্রকাশিত অথবা বেনামে বা ছদ্মনামে ও মরণোত্তর প্রকাশিত রচনা বা গ্রন্থসমূহ প্রথম প্রকাশের ষাট বছর পর পঞ্জিকাবর্ষের সূচনা থেকে কপিরাইট মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে যায়৷ অর্থাৎ, ১ জানুয়ারি ২,০২০ সালে, ১,৯৬০ সালের পূর্বে প্রকাশিত (বা পূর্বে মৃত লেখকের) সকল রচনা পাবলিক ডোমেইনের আওতাভুক্ত হবে। কবি কাজী নজরুল ইসলাম মৃত্যুবরণ করেন ৪৪ বছর পূর্বে ১৯৭৬ সালে; পক্ষান্তরে কাজী নজরুল ইসলামের সকল রচনা ১৯৪২ সালে তিনি পুরোপুরি অসুস্থ হয়ে যাওয়ার পূর্বে রচিত, অর্থাৎ তাঁর রচনাসমূহ ২,০২০ সাল হতে ৭৮ বছর পূর্বে রচিত হয়েছে। উভয় দেশের কপিরাইট আইন অনুযায়ী প্রকাশনার তারিখ বিবেচনায় কাজী নজরুল ইসলামের কিছু রচনা পাবলিক ডোমেইনের আওতায় থাকলেও কবির মৃত্যু তারিখের হিসেব বেশির ভাগ রচনাই মেধাস্বত্ত্বের আওতাভূক্ত।
এডুলিচার নজরুল রচনাবলী বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে তৈরি করা হয়নি, বরং পাঠক সহজে কাজী নজরুল ইসলামের রচনাসমূহ পড়তে পারেন এই উদ্দেশ্যে সাইটটি নির্মিত। তবু স্বত্ত্বাধিকারীগণের অভিযোগ পেলে আমরা সাইটটি বন্ধ করে দিতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।

Scroll Up