এযাবৎ 48 টি গ্রন্থ সংযোজিত হয়েছে।
দীওয়ান-ই-হাফিজ
গজল ৮
ছন্দসূত্র :– আগন আঁ তুর  কে শিরাজি  বদসত আ-রদ  দিলে মারা।
যদিই কান্তা শিরাজ সজ্‌নি ফেরত দেয় মোর  চোরাই দিল্ ফের।
যদিই কান্তা শিরাজশিরাজ : প্রদীপ, ভিন্ন অর্থে ইরানের নাগরী। সজ্‌নি ফেরত দেয় মোর চোরাই দিল্ ফের,
সমরখন্দ আর বোখারায় দিই বদল তার লাল গালের তিল্‌টের!
লে আও সাকি, শরাব শেষটুক! কোথাও নাই ভাই, বেহেশতেও সে,
নহরনহর : জলধারা।, ‘রোকনা-আবাদ’রোকনা-আবাদ : কবি হাফিজের বাস-পল্লির পাশে অবস্থিত উপনদীর নাম।-তীর আর এমন ঈদগাহ, এদেশ সেও সে।
বাঁচাও বন্ধু! নিলাজ চঞ্চল চটুল চুলবুল প্রিয়ার মুখচোখ,
তুর্কি সৈন্যের ‘লুটের খাঞ্চা’র মতোই বিলকুল লুটলে সুখ-লোক!
অপূর্ণই মোর এশ্‌ক্-গুলবাগ তাতেই মশগুল ভোমর চঞ্চল,
হুর যে চায় না স-টোল লাল গাল, হরিণ চোখ, মুখ কোমল ঢলঢল।
আগেই জানতাম, ব্যাকুল-দিন-দিন আকুল-যৌবন হাসিন ‘ইউসফ’ইউসফ : আল্লাহে্‌র অন্যতম নবি।
প্রেমের টান তার নাশবে হরবে ‘জুলায়খা’র সব নারীর গৌরব।
চলুক সেহলিরসেহলি : সহচরী সখী। শরাব-সংগীত, কালের কুঞ্জি নাই তলাশ তার,
না-হক কসরত গ্রন্থি খুলবার রহস্যের এই রশি ফাঁসটার!
নীতির গীত শোন পিতম চঞ্চল! শান্ত সুন্দর তারই ঠিক প্রাণ,
জ্ঞানের বৃদ্ধের নীতির বশ যে, সৎ কোথায় যার প্রাণ-অধিক জ্ঞান।
মন্দ কও? আহ্ তাতেই জান্ তর্তর্ : ভেজা, আর্দ্র।! আবার গাল দাও হে মোর লক্ষ্মী;
গাল তো নয় ও, মিষ্টি শরবত ঢালছে পান্নার শিরীন ঠোঁটটি!
গজল-গীত নয়, মুক্তো গাঁথছিস, হাফিজ আয়, ফের মধুর তান ধর!
তারার লাখ হার ছুড়বে বারবার অধীর আশমান শুনলে গান তোর।
নির্ঝর সূচী
আপনার জন্য প্রস্তাবিত
ভালো লাগা জানান
Scroll Up